মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

বনগ্রামের গনকবর

বনগ্রামের গনকবর

১৯৭১ সাল। গয়হাটা ইউনিয়নের বনগ্রাম, চারদিকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন জঙ্গলে ঘেরা একটি গ্রাম। সম্ভবত গেরিলা যুদ্ধের কৌশলগত কারনে মুক্তিসেনারা এমন জায়গাতি বেছে নিয়েছিল। বনগ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ছিল মুক্তিসেনাদের মুল প্রশিক্ষন কেন্দ্র। এখান থেকেই পাকিস্থানি হানাদার বাহিনীর উপর সফল হামলা চালান হত। কিন্তু এলাকার কিছু স্বাধীনতা বিরোধীদের কারনে নাগরপুরে অবস্থানরত হানাদারেরা তা টের পেয়ে যায়। ২৫ অক্টোবর বেলা আনুমানিক ৯/১০ টার দিকে আকস্মিক ভাবে মুক্তসেনা ঘাঁটিতে হামলা চালায়। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিরোধের মুখে প্রথমে পিছু হটে গিয়ে, পরে সিরাজগঞ্জে অবস্থানরত পাকবাহিনীর সহায়তায় পুনরায় যুদ্ধে লিপ্ত হয়। এসময় সাধারন মানুষ ও মুক্তিজদ্ধা সহ ৭৬ জন শহীদ হয় এবং অসংখ্য ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়। গ্রামবাসীরা নিহতদের একত্রিত করে একজায়গায় তাদের দাফন করে। আর এই স্মৃতিকে আলোড়িত করার জন্য এখানে গড়ে তলা হয় গনকবর স্মৃতিসৌধ।

কিভাবে যাওয়া যায়:

টাংগাইল হতে সিএনজি যোগে নাগরপুর হয়ে বনগ্রামের গনকবর।